সালথায় চাল বিতরনে অনিয়ম, বিক্ষুব্দদের ইউপি কার্যালয় ঘেরাও

সালথায় চাল বিতরনে অনিয়ম, বিক্ষুব্দদের ইউপি কার্যালয় ঘেরাও

ফরিদপুর কন্ঠ রিপোর্ট #
ফরিদপুরের সালথা উপজেলার মাঝারদিয়া ইউনিয়নে ঈদ-উল ফিতর উপলক্ষে সরকারের বরাদ্দকৃত ভিজিএফের ১০ কেজি চাল বিতরণে ব্যাপক অনিয়মের অভিযোগ উঠেছে। ভিজিএফ উপকারভোগি ও এলাকাবাসী ইউনিয়ন পরিষদ ঘেরাও করে রাখে। মঙ্গলবার সকাল ১১টায় মাঝারদিয়া ইউনিয়ন পরিষদে এ ঘটনা ঘটে। পরে প্রশাসনের হস্তক্ষেপে চাউল বিতরণ শুরু করা হয়।
ভিজিএফ উপকারভোগি ও এলাকাবাসী জানান, সরকারী নিয়মানুযায়ী মাঝারদিয়া ইউনিয়নে ১৭৮৫টি ভিজিএফ কার্ড বরাদ্দ রয়েছে। প্রতি কার্ডধারীকে ১০ কেজি করে চাল দেওয়ার কথা থাকলেও সেখানে ইউপি চেয়ারম্যান, ইউপি সচিব ও ট্যাগ অফিসার উপজেলা সমবায় অফিসার আব্দুর রহমানের যোগসাজসে ৬-৭ কেজি করে চাল বিতরণ করেন বলে মুরাটিয়া গ্রামের লিমন, নান্টু, আরজু, কাগদি গ্রামের খলিল, ইশারত, নাজিম মোল্যাসহ ২০-২৫ জন ভিজিএফ উপকারভোগি চাল কম পেয়েছেন বলে সাংবাদিকদের জানান। চাল বিতরণের সময় ২০-২৫ জনের চাল পরিমাপ করার পর কম দেয়ার বিষয়টি উপস্থিতিদের মধ্যে জানাজানি হলে উত্তেজনার সৃষ্টি হয়। এসময় ভিজিএফ উপকারভোগী ও এলাকাবাসী ইউপি চেয়ারম্যান হাবিবুর রহমান হামিদ, ইউপি সচিব ও ট্যাগ অফিসারকে ঘরের মধ্যে আটকিয়ে ইউনিয়ন পরিষদ ঘেরাও করে রাখে। খবর পেয়ে সালথা থানা পুলিশ ঘটনাস্থলে গিয়ে পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রনে আনেন।
ইউপি সচিব সাব্বির হাসান বলেন, পরে প্রশাসন উপস্থিত হয়ে চাল বিতরণ সম্পন্ন করেন। উপজেলা সমবায় অফিসার ও ইউপি ট্যাগ অফিসার আব্দুর রহমান জানান, বিষয়টি নিয়ে উত্তেজনার সৃষ্টি হলেও পরে ঠিক হয়েছে।
সংশ্লিষ্ট ইউপি চেয়ারম্যান হাবিবুর রহমান হামিদ চাল কম দেওয়ার বিষয়ে অস্বীকার করে বলেন, এটি আমার বিরুদ্ধে রাজনৈতিক প্রতিপক্ষের ষড়যন্ত্র।
এ ব্যাপারে উপজেলা নির্বাহী অফিসার মোহাম্মাদ মোবাশ্বের হাসান বলেন, চাল বিতরণে অনিয়মের খবর পেয়ে তাৎক্ষনিকভাবে প্রশাসনের অধীনে চাল বিতরণ করা হয়।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *